ঈদকে সামনে রেকে রাজধানীতে এক দোকানেই ৪০ গরু জবাই

0

ডেস্ক রিপোর্টধ: ঈদ মানে আনন্দ। ঈদ মানে গরুর গোস্ত। গরুর মাংস ছাড়া ঈদ আসলেই কল্পনা করা যায় না। আর সে জন্যই ঈদের আগের দিন ভিড় বেড়েছে রাজধানীর গরুর মাংসের দোকানগুলোতে। দোকান ছাড়াও গরু জবাই হচ্ছে পাড়া-মহল্লাতে। চাহিদার তুলনায় দাম কিছুটা বেড়েছে। তবে অস্থায়ী দোকানগুলোতে তুলনামূলক কিছুটা কম দামে মাংস বিক্রি করতে দেখা গেছে। বাজারের দোকানগুলোতে মাংস বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৫৮০ থেকে ৬০০ টাকা দরে। আর পাড়া-মহল্লার ওইসব দোকানে মাংসের দাম ৫৫০ থেকে ৫৮০ টাকা কেজি। বিক্রেতারা বলছেন, এবার ঈদে মানুষের মাংস কেনা বেড়েছে। অন্যন্য বছরের তুলনায় লকডাউনের কারণে এ বছর বেশি মানুষ ঢাকায় ঈদ করছেন। ফলে মাংসের বিক্রিও ভালো। মালিবাগ মেইন রোডে খোরশেদ গোশত বিপণীতে দিন-রাত প্রায় সারাক্ষণই মাংস বিক্রি হতে দেখা যায়। সেখানে বৃহস্পতিবার ক্রেতাদের দিন লাইন ধরে মাংস কিনতে দেখা গেছে। ওই দোকানের তত্ত্বাবধায়ক স্বপন মিয়া বলেন, আজ ৪০টি গরু জবাই হবে। এর মধ্যে বেলা ১২ টা পর্যন্ত ১১টা জবাই হয়েছে। কাল বিক্রি হবে আরও বেশি। বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, অলিগলি ও বাজারগুলোতে জবাই করার জন্য গরু বেঁধে রাখা হয়েছে। তবে দাম কোথাও ৫৮০, কোথাও ৬০০ টাকা কেজি। এদিকে গরুর মাংসের সঙ্গে বেড়েছে খাসির মাংসের দামও। টিসিবির হিসাবে, মাসখানেক আগেও খাসির মাংস পাওয়া যেত ৭৫০-৮৫০ টাকা কেজি। এখন তা ৮০০-৯০০ টাকা কেজি। এছাড়া শাহজাহানপুরে খলিলের মাংসের দোকানেও অনেকগুলো গরু জবাই করা হয়েছে যা রেকর্ড।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.