জঙ্গলের টারজান এখন ঘরে

0

ডেস্ক রিপোর্ট: টারজান বললে এমন এক মানবের ছবি চোখের সামনে ভেসে ওঠে যিনি অনায়াসে বাস করতে পারে গভীর জঙ্গলে। সেখানে পশু-পাখির সঙ্গে তার সখ্য; গাছগাছালির ফলমুল আহার। মানুষ ও সভ্যতা থেকে তিনি থাকে দূরে। তাই টারজান নিয়ে মানুষের আগ্রহের শেষ নেই। তাকে ঘিরে হয়েছে অনেক সিনেমা, নাটক। কিন্তু বাস্তবে কি টারজানের কোনো অস্তিত্ব আছে, এ প্রশ্ন অনেকের? কারণ, দূর্গম বনে জন্তু-জানোয়ার, সাপকূপের সঙ্গে একা বসবাস প্রায় অসম্ভব।
কিন্তু এ অসাধ্যকে সাধন করেছেন ভিয়েতনামের এক ব্যক্তি। ৪১ বছর গভীর জঙ্গলে একা কাটিয়েছেন হু ভ্যান ল্যাং। তিনি যেনো বাস্তবের টারজান! ভিয়েতনামে এখন তাকে নিয়ে চলছে নানা আলোচনা। ১৯৭২ সালে ভিয়েতনাম যুদ্ধের সময় শিশু হু ভ্যান ল্যাং জঙ্গলে হারিয়ে যান। টানা ৪১ বছর জঙ্গল থেকে বের হননি তিনি। বোধ হওয়ার পর থেকে মানব সভ্যতা থেকে দূরে থেকেছেন। পরে ২০১৩ সালে ল্যাংকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি গ্রামে আনা হয়। তারপর থেকে ক্রমে স্বাভাবিক জীবনের সঙ্গে পরিচয় ঘটতে থাকে ল্যাংয়ের। ক্রমে স্বাভাবিক হয়ে উঠছেন তিনি। এত দিন পর প্রকাশ্যে এসেছে তার গল্পটি। প্রসঙ্গত, ভিয়েতনাম যুদ্ধে ল্যাংয়ের মা ও এক ভাই মারা যান। সূত্র: টাইমস নাও।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.