বাংলাদেশকে জাপানের ঋণ সহায়তা

0

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশকে নামমাত্র সুদে ২৯ হাজার ১৫৪ কোটি টাকা ঋণ দেবে বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী জাপান। জাপানের ৪২তম অফিসিয়াল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসিস্ট্যান্স (ওডিএ) ঋণ প্যাকেজের আওতায় বাংলাদেশ এ অর্থ পাবে। জাপান বিশ্বের ৭০টি দেশে ওডিএ ঋণ দিয়ে থাকে। এসব দেশের মধ্যে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ ওডিএ ঋণ পেতে যাচ্ছে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে দেশটি। এই ঋণে সুদের হার হবে বার্ষিক শূন্য দশমিক ৬০ শতাংশ। ১০ বছরের রেয়াতসহ (গ্রেস পিরিয়ড) ৪০ বছরে এ ঋণের অর্থ পরিশোধ করতে হবে। ২ এপ্রিল শুক্রবার অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) এমন তথ্য নিশ্চিত করেছে। ওডিএ ঋণের বিষয়ে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন ও বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানি রাষ্ট্রদূত নাওকি ইতোর সঙ্গে ভার্চ্যুয়ালি আলোচনা হয়েছে। রেকর্ড পরিমাণে ঋণের প্রতিশ্রুতি দেওয়ায় নাওকি ইতোর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন ফাতিমা ইয়াসমিন।  ইআরডি সূত্র জানায়, জাপান সরকার ২০২১ অর্থবছরে বাংলাদেশকে ৩ লাখ ৭৩ হাজার ২৪৭ মিলিয়ন জাপানি ইয়েন দেবে, যা ৩ হাজার ৩৯৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ৩ দশমিক ৩৯ বিলিয়ন ডলার। প্রতি ডলার সমান ৮৬ টাকা ধরে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৯ হাজার ১৫৪ কোটি টাকা। প্রকল্প বাস্তবায়ন ও করোনা সংকট থেকে উত্তরণের জন্য বিপুল অংকের এই ঋণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে জাপান। যা বাংলাদেশের জন্য জাপানের সর্বোচ্চ ঋণের প্রতিশ্রুতি। জাপানি ইয়েনের বিবেচনায় এটাই বাংলাদেশকে দেওয়া সবচেয়ে বড় ঋণ-সহায়তা। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাপান সফরের সময় পাঁচ বছরে ৬০০ কোটি ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। এ দফার ঋণ-সহায়তা তারই অংশ। ইআরডির যুগ্ম সচিব (জাপান শাখা) মোহাম্মদ আশরাফ আলী ফারুক বলেন, জাপান বাংলাদেশকে রেকর্ড পরিমাণে ওডিএ ঋণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। জাপান বিশ্বের ৭০টি দেশে ওডিএ ঋণ দিয়ে থাকে। ওডিএ ঋণের সুদ নামমাত্র, শর্তও কম। ফলে এটা বাংলাদেশের জন্য বড় অর্জন। বাংলাদেশকে এই পরিমাণে ওডিএ ঋণের প্রতিশ্রুতি জাপান এর আগে কখনও দেয়নি।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.